সাভার পৌর নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

সাভার (ঢাকা) থেকে মো. সিরাজুল ইসলাম »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দ্বিতীয় দফায় ঢাকার সাভার পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে এ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে।

করোনা পরিস্থিতিতে বিশেষ ব্যবস্থা ছাড়াও শান্তিপূর্ণ ভোটপর্বের জন্য বেশ কয়েকটি বাড়তি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনী এলাকায় জারি করা হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা। পুলিশের পাশাপাশি বাড়তি মোতায়েন রয়েছে ৬ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবসহ অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য। ভোটের পর দিন পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন তারা।

সাভার মডেল থানার ওসি তদন্ত সাইফুল ইসলাম বলেন, সাভার পৌরসভা নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক। পৌরসভার ৮৪টি কেন্দ্রের একটি কেন্দ্র‌ও ঝুঁকিপূর্ণ নয়। সবগুলো কেন্দ্রকে সমান ভাবে গুরুত্ব দিয়ে নজরদারি করা হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ ৩ জন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে হাজী আব্দুল গনি, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে আলহাজ্ব রেফাত উল্লাহ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী হাত পাখা প্রতীক নিয়ে মোশারফ হোসেন ভোটযুদ্ধে অংশগ্রহণ করছেন।

নারী কাউন্সিলর হিসেবে ৯ জন ও সাধারণ আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন ৪০ জন। এর মধ্যে ২ নং ওয়ার্ডে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নজরুল ইসলাম মানিক মোল্লা কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ছাড়া মেয়র ও নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের ভোটগ্রহণ হবে। সব মিলিয়ে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন ৫২ জন প্রার্থী।

পৌরসভার ৮৪ টি কেন্দ্রে ১ লক্ষ ৮৮ হাজার ৮৮ ভোটার তাদের নগরপিতা নির্ধারণ করবেন ইভিএমের বাটন চেপে।

এবারের নির্বাচনে সাভারের ৯টি ওয়ার্ডে ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে। তাই পৌরসভার সচেতন ভোটারদের মাঝে একটু ভিন্ন আমেজ দেখা গেলেও সাধারণ ভোটাররা রয়েছেন কিছুটা শঙ্কায়। মেশিনে ভোট প্রদান করলে তার আমানত ভোটটি সঠিক প্রতীকে থাকবে কি না এ নিয়েও তাদের মনে দ্বিধা রয়েছে।

এদিকে, পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে শুক্রবার রাত ১২টা থেকে রোববার বেলা ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় ট্রাক ও পিকআপ চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ঢাকা জেলা প্রশাসন।

এছাড়াও, এই সময়ে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা বলেন, কয়েকটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া সব জায়গায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে। করোনা সতর্কতায় ভোটারদের স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে কঠোর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খান বলেন, সব রকম প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। আজ ভোটগ্রহণ, সেখানকার পরিস্থিতিও শান্ত। ভোটকর্মীরা নিজেদের কাজ শুরু করে দিয়েছেন। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৯টি ওয়ার্ডে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষণিক ভাবে দায়িত্ব পালন করবেন। এখন পর্যন্ত কোন সমস্যা বা অপ্রীতিকর ঘটনার কোন অভিযোগ আমরা পাইনি। সব ভোট হবে ইভিএমে।

তিনি আরও বলেন, ইভিএমে ভোট দান স্বচ্ছ ও সহজ। নির্ভুল ভাবে ভোটগ্রহণের সঠিক মাধ্যম এটি। জাল ভোট কিংবা কারচুপি করার কোন সুযোগ নেই ইভিএমে।

সাভার পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৮৮ হাজার ৮৮ জন। তন্মধ্যে মহিলা ভোটার ৯৩ হাজার ৫০১ জন ও পুরুষ ভোটার ৯৪ হাজার ৫৮৭ জন। ইভিএমে ভোটগ্রহণের দায়িত্বে রয়েছেন ৮৪ জন প্রিজাইডিং ও ৪৮০ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ৯৬০ জন পোলিং অফিসার।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »