খাবারের খোঁজে হনুমান লোকালয়ে

বরগুনা থেকে মোঃ মাহবুবুল আলম »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বরগুনার বেতাগীতে খাবারের খোঁজে লোকালয়ে দেখা মিলেছে হনুমানের। খাবার ও নিরাপত্তার জন্য এক স্থান থেকে আরেক স্থানে ছুটে চলছে হনুমানটি। তবে প্রাণীটিকে রক্ষায় বন বিভাগ কোন ধরনের পদক্ষেপ নিতে পারছেনা।

স্থানীয়রা জানান, বরগুনার বেতাগী উপজেলায় বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে দেখা মিলছে হনুমানটির। খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে আসা হনুমানটির লাফ-ঝাঁপ দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমালে প্রাণের ভয়ে স্থান পরিবর্তন করছে সে।

বৃহস্পতিবার উপজেলা পরিষদের সামনে দেখা যায় হনুমানটি দেয়ালে বসে রয়েছে। তাকে দেখতে উৎসুক জনতা নানা প্রকার খাবার দিচ্ছেন। খিদে পেলে দেওয়াল বা উঁচু স্থান থেকে নিচে নেমে খাবারের সন্ধানে আশপাশে ঘুরে আবারও উঠে যাচ্ছে ওপরে।

পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল জিয়াউর রহমান জুয়েল জানান, গত ২২ সেপ্টেম্বর হঠাৎ বাজারের বিভিন্ন স্থানে দেখা যায় হনুমানটিকে। তাকে দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় করছেন। তবে মানুষের উপস্থিতিতে আতঙ্কিত হয়ে একস্থান থেকে অন্য স্থানে ছুটে চলছে হনুমানটি।

বেতাগী পৌরসভার সিনিয়র অফিস সহকারী তুহিন সিকদার বলেন, গত ২৯ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে হনুমানটিকে আমার বাসার ছাদে দেখতে পাই।

বেতাগী পৌর মেয়র গোলাম কবির বলেন, শহরের বিভিন্ন স্থানে একটি মুখ পোড়া হনুমান ঘুরে বেড়াচ্ছে। সেটি অন্য কোথাও থেকে দলছুট হয়ে এখানে এসেছে। স্থানীয়রা যাতে হনুমানটির কোনো ক্ষতি না করে সে জন্য আমি সবার প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি। এগুলো আমাদের জাতীয় সম্পদ, তাই এদের রক্ষা করা আমাদের সবার নৈতিক দায়িত্ব।

বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সুহৃদ সালেহীন বলেন, বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

বনবিভাগের বেতাগী বিটের ভারপ্রাপ্ত বিট কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র রায় বলেন, হনুমান একেক সময়ে একেক স্থানে চলে যায়। একে ধরার কোনো উপায় আমাদের জানা নেই। হনুমানটি নির্দিষ্ট কোনো স্থানে অবস্থান করে না। কখনও নিয়ামতি, কখনও নলসিটি, মহেশপুর অবস্থান করে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »