১০০ নম্বরের পরীক্ষায় শিক্ষার্থী পেলেন ১৯৬!

বিশ্বকণ্ঠ ডেস্ক »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার অব অ্যাডুকেশন কোর্সে ভর্তির জন্য অনলাইনে প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। এই পরীক্ষায় মোট নম্বর ছিল ১০০।

কিন্তু প্রকাশিত মেধা তালিকায় দেখা যায়, এক ছাত্র পেয়েছেন ১৯৬ এবং একজন ছাত্রী পেয়েছেন ১৫১ নম্বর।

মেধাতালিকায় এ ধরনের ভুল দেখা গেছে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে। ১৪ সেপ্টেম্বর ওই ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হয়। ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় এই মেধাতালিকা প্রকাশ করা হয়।

মেধাতালিকায় প্রকাশিত ৪৩ জনের মধ্যে দু’জনের প্রাপ্ত নম্বরে এই বিভ্রাট দেখা যায়। সেখানে লেলিন শেখ পেয়েছেন ১৯৬ এবং ঋতিকা রানি পেয়েছেন ১৫১। তবে অন্যদের নম্বরে তেমন গরমিল দেখা যায়নি।

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, এই মেধাতালিকা প্রকাশের পর তা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা এই মেধাতালিকা পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছেন।

এর আগে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে ভর্তি জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছিল বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। মাস্টার অব অ্যাডুকেশন কোর্সের প্রবেশিকা পরীক্ষার এই নম্বর বিভ্রাটও তারই অংশ কি না, সেটা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

অনেকেই অভিযোগ তুলেছেন, জালিয়াতি করতে গিয়েই মেধাতালিকা এভাবে তৈরি করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র অনির্বাণ সরকার এখনও কোন প্রতিক্রিয়া দেননি।

প্রসঙ্গত, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার অব অ্যাডুকেশন কোর্সে আসন সংখ্যা ৩০টি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »