ধর্ষণ মামলায় জামিনে বেরিয়ে ফের স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

বরগুনা থেকে মাহবুব আলম »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বরগুনায় রাব্বি নামে এক ধর্ষণ মামলার আসামি জামিনে মুক্তি পেয়ে আবারো এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার রাতে ধর্ষণের অভিযোগে বরগুনা থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর মা।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, বিয়ের প্রলোভনে মিথ্যা কাবিননামা বানিয়ে মাসের পর মাস ঐ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করেছে রাব্বি। শারীরিক সম্পর্কে রাজি না হলে নির্যাতনের পাশাপাশি নেশার ঘোরে বারবার ধর্ষণ করতো ওই কিশোরীকে। সবশেষ গত ২৬ সেপ্টেম্বর রাব্বি তার বন্ধু মামুনের বাসায় নিয়ে ধর্ষণ করে কিশোরীকে। এরপর নিজের ভাড়া বাসায় নিয়ে ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর উপর চালায় পাশবিক নির্যাতন।

সরকারি চাকুরে পিতা-মাতার একমাত্র সন্তান গোলাম রাব্বি দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও যৌন হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত। মাদক ব্যবসার প্রসার এবং উঠতি বয়সী তরুণীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করাই তার মূল লক্ষ্য। বয়েস ত্রিশের কোঠায় পৌঁছার আগেই নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে অনেক মামলার প্রধান আসামির তালিকায় রয়েছেন তিনি। সরকারি চাকরিজীবী বাবা-মায়ের প্রভাব ও টাকার জোরে বহু অভিযোগ থেকে বিনা বিচারে মুক্তিও পেয়েছেন তিনি, এমন ঘটনাও রয়েছে অসংখ্য। আর একারণেই দিনদিন আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে গোলাম রাব্বি।

গোলাম রাব্বি তার স্ত্রী স্মৃতি আক্তারকে কৌশলে শশুরবাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে গত ৫ আগস্ট স্ত্রীর বান্ধবীকে কৌশলে বাসায় ডেকে এনে ধর্ষণ করে। ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই কিশোরীকে একইভাবে পরদিনও ধর্ষণ করে রাব্বি। হঠাৎ ঘরে ঢুকে স্ত্রী ওই কিশোরীসহ স্বামী রাব্বিকে বিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পায়। পরে পুলিশে খবর দিলে পালিয়ে যায় রাব্বি। পুলিশ এসে কিশোরীকে উদ্ধার করে এবং একই সময়ে অভিযান চালিয়ে রাব্বিকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এ ঘটনায় স্কুল পড়ুয়া সংখ্যালঘু ওই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে একই দিন ৬ তারিখ বরগুনা সদর থানায় গোলাম রাব্বির বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর মা। ওই মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। কিন্তু জামিনে বের হয়ে যায় রাব্বি। ধর্ষণের নেশায় মাতাল রাব্বি আবারও পুনরাবৃত্তি ঘটায় একই অপরাধের।

বরগুনার থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম জানান, ১৬ বছর বয়সী কথিত স্ত্রী ধর্ষণের অভিযোগে গোলাম রাব্বির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পলাতক রাব্বিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। একইভাবে ধর্ষণের অভিযোগে পূর্বেও তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। মাদক মামলাতেও সে জেল খেটেছে। তার বিরুদ্ধে বেশকয়েকটি মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »