শেরপুরে ৮০০ কেজি অবৈধ পলিথিন উদ্ধার

শেরপুর প্রতিনিধি »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামে একটি বশতবাড়িতে নিষিদ্ধ ঘোষিত পলিথিন বিরোধী অভিযান চালিয়ে ৮০০ কেজি পলিথিন উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা, পরিবেশ অধিদপ্তর ও ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রশাসন এই অভিযান পরিচালনা করে। উদ্ধারকৃত পলিথিনের আনুমানিক বাজারমূল্য ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে বিষ্ণুপুর গ্রামের মৃত খয়বর আলীর ছেলে পলিথিন ব্যবসা করে এবং তার পলিথিন স্থানীয় জুয়েল মিয়ার বশতবাড়িতে সংরক্ষিত আছে। পরে এনএসআই দ্রুত পরিবেশ অধিদপ্তর ও ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে অভিযান চালায়। অভিযানে মো. জুয়েল মিয়ার বশতঘর থেকে ৮০০ কেজি পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর ও নিষিদ্ধ ঘোষিত পলিথিন উদ্ধার করা হয়।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ জয়নাল আবেদীন পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে মোঃ জুয়েল মিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন যা জুয়েল মিয়া নগদ পরিশোধ করেন।

অভিযানের ব্যপারে শেরপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক নয়ন কুমার রায় বলেন, পলিথিন এমন একটি উপাদানে তৈরি, যা পরিবেশের জন্য মোটেই উপযোগী নয়। এর মধ্য থেকে বিষফেনোল নামক বিষ নির্গত হয় এবং খাদ্যদ্রব্যের সঙ্গে মিশে যায়। পলিথিন জমির উর্বরতা শক্তি নষ্টসহ নদীর তলদেশে জমা হয়ে নদীর তলদেশ ভরাট করে ফেলে। এই নিষিদ্ধ পলিথিন উৎপাদন, বিপণন ও ব্যবহারের বিরুদ্ধে আমরা সচেতন। এসবের বিরুদ্ধে আমাদের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »