টঙ্গীতে স্বর্ণ লুটের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৭, মালামাল উদ্ধার

গাজীপুর থেকে মোফাজ্জল হোসেন »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

টঙ্গীতে ডাকাতির ঘটনায় সাত ডাকাতকে লুণ্ঠিত আংশিক মালামালসহ গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুর মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে ও দিনে ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, শাহবাগ ও পল্টন থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি-ডিবি) নূরে আলম মোল্লা বৃহষ্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- আসাদুজ্জামান পলাশ (৪০), অলিউর রহমান (৪০),আব্দুল হাকিম (৪০), রিপন আহাম্মেদ রবিন (৪০), কামরুল ইসলাম (৩৬), মোহন চৌকিদার (৫২) ও বাচ্চু মিয়া (৪৫)। তারা দেশের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা এবং আন্ত:জেলা ডাকাতদলের সদস্য।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি-ডিবি) নূরে আলম মোল্লা বলেন, গ্রেপ্তারকৃত ডাকাতদের কাছ থেকে তিন ভরি স্বর্ণ, সাড়ে ১১ ভরি রৌপ্যের অলঙ্কার, নগদ টাকা ও সাতটি মোবাইল ফোন, এক জোড়া হাতকড়া, গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ লেখা দুটি জ্যাকেট ও একটি হায়েস গাড়ি উদ্ধার করা হয়।

বৃহষ্পতিবার গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ কমিশনার রিপন চন্দ্র সরকার, আবু সায়েম নয়ন ও পুলিশ পরিদর্শক ইব্রাহীম খলিল।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক পৌণে ১১টার দিকে টঙ্গীর গাজীপুরা কাজীবাড়ী এলাকার “রিয়ামনি জুয়েলার্সের” দুই কর্মচারী দোকান বন্ধ করে বাসায় ফেরার উদ্দেশে বের হয়। ফেরার পথে পার্শ্ববর্তী উত্তরণ স্কুলের সামনে গেলে ডিবি পুলিশের জ্যাকেট পরিহিত গ্রেপ্তারকৃতরা হায়েচ গাড়িযোগে দুই কর্মচারীকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাদেরকে মারধর করে মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ী থানার মৌচাক এলাকায় রাস্তার পাশে ফেলে রেখে যায়। এ সময় কর্মচারীদের কাছে থাকা সাড়ে ১৪ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ১০৭ ভরি রৌপ্যের অলঙ্কার, ছিনিয়ে নেয়। পরে আহত কর্মচারীরা নিকটবর্তী দোকান থেকে মুঠোফোনে স্বজনদের ঘটনা জানালে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে রিয়ামনি জুয়েলার্সের মালিক. ইয়াছিন সংশ্লিষ্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে গাজীপুর মেট্রাপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ ডাকাতদের গ্রেপ্তার ও লুন্ঠিত আংশিক মালামাল উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »