লাইসেন্স-ফার্মাসিস্ট ছাড়াই চলছে ওষুধের দোকান

খুলনা প্রতিনিধি »

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট-বাজারে চলছে লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্টবিহীন ওষুধের দোকান।

কোন দক্ষতা ছাড়াই ওষুধ বিক্রি ও চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করছেন অনেক দোকান মালিক। এসব কারণে অনেক সময় রোগীরা ঝুঁকিতে পড়ছেন।

ডুমুরিয়া উপজেলার ধামালিয়া, রঘুনাথপুর, রুদাঘরা, খর্নিয়া, আটলিয়া, মাগুরা ঘোনা, শরাফ পুর, সাহস গুটুদিয়া, শোভনা, ভান্ডার পাড়া, রং পুর, মাগুর খালী, ডুমুরিয়া সদর ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে হাট-বাজারে গড়ে উঠেছে লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্টবিহীন এসব ওষুধের দোকান।

এই ১৪টি ইউনিয়নে কয়টি লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্টবিহীন ফার্মেসি আছে তার সঠিক তথ্য দিতে পারেনি ড্রাগিস্টস মালিক সমিতি।

বাংলাদেশ কেমিস্ট বন্ড ড্রাগিষ্টস সমিতির উপজেলা শাখার সভাপতি গৌর কিশোর রায় জানান, ফার্মাসিস্টের জটিলতার কারণে অনেকে লাইসেন্স করতে পারছে না। তিনি দ্রুত ফার্মাসিস্টের জটিলতা অবসানের জোর দাবি জানান।

সরেজমিনে উপজেলা সদরের ডুমুরিয়া বাজার, খর্নিয়া বাজার, চুকনগর বাজার, আঠারো মাইল বাজার শাহাপুর বাজার, রঘুনাথপুর বাজার, থুকড়া বাজার, আমভিটা বাজার, শরাফপুর বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ওষুধ ব্যবসায়ীরা দোকানে বসে চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে একাধিক ফার্মেসির মালিক জানান, ড্রাগ লাইসেন্স পাওয়াটা বর্তমানে অনেক কঠিন হয়ে গেছে। তাই লাইসেন্স ছাড়া ওষুধ বিক্রয় করছি। কোন ধরনের সমস্যা হয়নি এখনো। যদি বেশি সমস্যা হয় তাহলে ঘুষ দিয়ে হলেও লাইসেন্স বানিয়ে নিতে হবে।

ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মো. আব্দুল ওয়াদুদ জানান, শিগগিরই উপজেলার লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্টবিহীন ফার্মেসিগুলোতে ওষুধ প্রশাসনের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করা হবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »