স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে ছেলেকে গলাকেটে হত্যা

কালকিনি (মাদারীপুর) থেকে মো. আতিকুর রহমান »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মাদারীপুরের কালকিনিতে স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে ছেলেকে গলাকেটে হত্যা করার পর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক ব্যক্তি।

রোববার রাত ১১টার দিকে উপজেলার গোপালপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জাকির হোসেন রনি (১১) ওই এলাকার তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে। সে খৈয়ারভাঙ্গা এতিমখানা মাদ্রাসায় ২য় শ্রেণীতে লেখাপড়া করতো।

পারিবারিক ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি কালকিনির গোপালপুরের তোফাজ্জেল হোসেনের স্ত্রী মিনারা বেগম বালিগ্রাম এলাকার আব্দুর রশিদের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। আব্দুর রশিদ গোপালপুর হাটে চা বিক্রয় করেন। তিন মাস আগে মিনারা বেগম রশিদের সঙ্গে পালিয়ে যান। এ নিয়ে তোফাজ্জেল মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছিলেন। এলাকাবাসীর ধারণা, লোকলজ্জার ভয়ে ছেলে ও নিজেকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করেন তোফাজ্জেল। সেই অনুযায়ী রোববার রাত ১১টার দিকে তোফাজ্জেল ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছেলে রনিকে গলাকেটে হত্যার পর নিজে বিষপান করেন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে রনির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদেন্তর জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পাশাপাশি তোফাজ্জেলকে উদ্ধারের পর মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

রনির মামা আনোয়ার হোসেন বলেন, মিনারা পরকীয়ার কারণে চা বিক্রেতা রশিদের সঙ্গে ঢাকায় চলে গেছে। পরে তোফাজ্জেল কষ্টে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, তোফাজ্জেলের অবস্থা ভর্তির পর থেকেই গুরুতর। তবে সোমবার সকাল ১০টা থেকে অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইশতিয়াক আসফাক রাসেল জানান, তোফাজ্জেল এখন হাসপাতালে। সুস্থ হওয়ার পর তার কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শুনে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রী পরকীয়ার কারণে মানসিক যন্ত্রণায় তিনি এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »