‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ শিল্পকর্মের ধান কাটা শুরু

অনলাইন ডেস্ক »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রপ ফিল্ড মোজাইক হিসেবে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে স্থান করে নেয়াশস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুশিল্পকর্মের ধান কাটা শুরু হয়েছে। আজ সোমবার বেলা ১১ টায় বগুড়ার শেরপুরের বালেন্দা গ্রামে শতবিঘা জমিতে ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. জাহাঙ্গীর কবির নানক। উৎসবের উদ্বোধক ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ আহ্বায়ক কৃষিবিদ . . বাহাউদ্দিন নাছিম।

বাংলাদেশ কৃষকলীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ’র সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের সদস্য সচিব কৃষিবিদ কে এস এম মোস্তাফিজুর রহমান সিআইপি। এসময় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আফজালুর রহমান বাবু, সহ-সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন, এ কে এম আসাদুর রহমান দুলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে নেতৃবৃন্দ ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধন করেন। এ জমি থেকে প্রাপ্ত ধান প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দেয়া হবে বলে আয়োজক কমিটি জানিয়েছেন।

চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি বগুড়ার শেরপুর উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রাম বালেন্দার মাঠে উদ্বোধন করা হয় ধান রোপনের। বালেন্দা গ্রামের শত বিঘা জমিতে শুরু হয় শস্যচিত্র তৈরির কাজ। ন্যাশনাল অ্যাগ্রিকেয়ার এর সহযোগিতায় চীন থেকে আনা ডিপ ভায়োলেট রঙের হাইব্রিড ও দেশের ‘জনকরাজ’ নামের ডিপ গ্রিন ধানের বীজ থেকে চারা উৎপাদন করা হয়। উৎপাদিত ধানের চারা রোপণ করার এক মাসেই দিগন্ত বিস্তৃত মাঠে ফুটে উঠে বিশ্বের সর্ববৃহৎ শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। ৯ মার্চ গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড এর ২ জন প্রতিনিধি পরিদর্শন করেন, ১৬ মার্চ গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ ‘লার্জেস্ট ক্রপ ফিল্ড মোজাইক (ইমেজ)’ শাখায় নতুন বিশ্ব রেকর্ড হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

আকাশ থেকে ভূমির দিকে তাকালেই দেখা যাচ্ছে ধানের ক্ষেতে দেশের স্থপতির প্রতিকৃতি। ভারত, বৃটেন, জাপান ও চীনের রেকর্ড ভেঙ্গে শস্যচিত্র অঙ্কনকারী ৫ম দেশ হিসেবে ‘গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস’-এ স্থান করে নেয় বাংলাদেশ। সর্বশেষ ২০১৯ সালে চীনে শস্য চিত্র তৈরি করা হয়েছিল, যার আয়তন ছিল ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৬ বর্গফুট। বগুড়ার প্রত্যন্ত গ্রাম বালেন্দায় বঙ্গবন্ধুর শস্যচিত্রটির আয়তন ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট। শস্যচিত্রটি দৈর্ঘ্য ৪০০ মিটার এবং প্রস্থ ৩০০ মিটার, যা বিশ্বের সর্ববৃহৎ শস্যচিত্র। ১৬ মার্চ মঙ্গলবার গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ ই-মেইল বার্তায় স্থান করে নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর থেকে সারাদেশের মতো বগুড়াবাসীদের মাঝে আনন্দের জোয়ার বয়ে যায়।

 

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »