বিজিএমইএ পর্ষদের মেয়াদ আরও বেড়েছে : সিদ্দিকুর

অনলাইন ডেস্ক »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অর্থকণ্ঠ ডেস্ক :
জাতীয় নির্বাচনের কারণে তৈরি পোশাক রফতানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিচালনা পর্ষদের মেয়াদ তৃতীয় দফায় বাড়ানো হয়েছে। সংগঠনটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান গত বৃহস্পতিবার রাতে একথা জানান। তিনি বলেন, আমরা মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছিলাম। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মেয়াদ এক মাস বাড়ানো হয়েছে বলে আমি শুনেছি। তবে সেই চিঠি এখনও আমার হাতে এসে পৌঁছায়নি। চলতি বছরের জানুয়ারিতে দ্বিতীয় দফায় এক বছরের জন্য বিজিএমইএর পরিচালনা পর্ষদের মেয়াদ বাড়িয়েছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। আগামী ৩১ মার্চ সেই মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই পর্ষদের মেয়াদ আরও একমাস বাড়ানোর খবর এল। বর্তমান সভাপতি ও স্টার্লিং ডেনিমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিদ্দিকুর রহমান বলেন, জাতীয় নির্বাচনের এই সময়ে বিজিএমইএর নির্বাচন আয়োজন কিংবা দায়িত্ব হস্তান্তর কঠিন হবে। সে কারণে আমরা কমিটির মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করেছিলাম।
তবে মেয়াদ বৃদ্ধির উদ্যোগের বিরোধিতা করে পোশাক কারখানা মালিকদের একটি পক্ষ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে বৃহস্পতিবারও পাল্টা একটি আবেদন করেছে। স্বাধীনতা পরিষদ নামের একটি কোরামের সভাপতি ও ডিএসএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, সমঝোতার মাধ্যমে মালিক সংগঠনের পদ ভাগাভাগি করতে গিয়ে পোশাক শিল্পকে ধ্বংসের মুখে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এখন নতুন করে তৃতীয় দফায় মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন করেছেন বর্তমান সভাপতি। শিল্পের স্বার্থকে পাশ কাটিয়ে ব্যক্তি স্বার্থে কাজ করতে বার বার নেতৃত্ব ধরে রাখার এই উদ্যোগ। সর্বশেষ ২০১৫ নির্বাচনের ক্ষণে দুই পক্ষ সমঝোতা করে সম্মিলিত পরিষদের প্রার্থী সিদ্দিকুরকে বিজিএমইএর সভাপতি করে। সিদ্দিকুরের নেতৃত্বাধীন কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর। তবে বিভিন্ন কারণে নির্বাচন না হওয়ায় মেয়াদ আরও ছয় মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছিল। চলতি বছরের শুরুতে দ্বিতীয় দফায় মেয়াদ বাড়ানোর আগে বিজিএমইএর নির্বাচনের জন্য তফসিলও ঘোষণা করা হয়েছিল। সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম নামে কারখানা মালিকদের দুটি প্ল্যাটফর্ম থেকে নেতৃত্ব নির্বাচন করে আসছিল বিজিএমইএ। বর্তমান সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান সম্মিলিতি পরিষদের প্রতিনিধি। এছাড়া এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, আতিকুল ইসলাম, মোস্তফা গোলাম কুদ্দুস, টিপু মুনসী ও সালাম মুর্শেদী এই পক্ষ থেকে বিজিএমইএর সভাপতি হয়েছিলেন। ফোরাম থেকে আনিসুর রহমান সিনহা, প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক, আনোয়ার উল আলম চৌধুরী পারভেজ বিজিএমইএ সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »