পরিবহন সুবিধা নয়তো যাতায়াত ভাতা দিতে হবে ব্যাংকারদের

অনলাইন ডেস্ক »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সরকার ঘোষিত লকডাউনে বা বিধিনিষেধ চলাকালীন ব্যাংকগুলোকে তার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অফিসে আসা-যাওয়ার জন্য নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় পরিবহন সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। যদি কোনও ব্যাংক তা নিশ্চিত করতে না পারে তাহলে কর্মীদের যাতায়াত ভাতা দিতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করে সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) কাছে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ।

এতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধকল্পে সরকার আরোপিত বিধি-নিষেধের মধ্যে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু রাখার সময়সীমা প্রাথমিকভাবে ১৪ই এপ্রিল থেকে ২১শে এপ্রিল নির্ধারণ এবং পরে ২১শে এপ্রিল থেকে ২৮শে এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। ১৩ই এপ্রিল জারি করা সার্কুলারে ব্যাংকের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিজ নিজ অফিসে আনা-নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়।

তবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে, সরকার ঘোষিত বিধি-নিষেধ চলাকালে ব্যাংক সব ক্ষেত্রে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য প্রয়োজনীয় যানবাহনের ব্যবস্থা করতে ব্যর্থ হওয়ায় এবং সীমিত আকারে ব্যাংকিং সেবা কার্যক্রম চালু রাখতে ব্যাংকে আসা-যাওয়ার জন্য গণপরিবহনের অপ্রতুলতার কারণে ব্যাংক কর্মকর্তা/কর্মচারীরা অধিক ব্যয় ও ভোগান্তির সম্মুখীন হচ্ছেন।

নির্দেশনায় আরো বলা হয়, ব্যাংকের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের যাতায়াত সমস্যা নিরসনে ব্যাংক তার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় নিজস্ব পরিবহন সুবিধা নিশ্চিত করবে। কোনও কারণে যাতায়াত সুবিধা নিশ্চিত করতে অসমর্থ বা ব্যর্থ হলে আসা-যাওয়ার জন্য ব্যাংক ব্যবস্থাপনা কর্তৃক যৌক্তিক হারে যাতায়াত ভাতা প্রদান করবে। এ সংক্রান্ত ব্যয়ের বিষয়ে পরবর্তীতে স্ব স্ব ব্যাংকের পরিচালক পর্ষদের কার্যোত্তর অনুমোদন গ্রহণ করবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »