করোনায় আরও ৯৭ জনের প্রাণহানী

অনলাইন ডেস্ক »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১১ হাজার ১৫০ জনে।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একই সময়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৩০৬ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এখন সাত লাখ ৪৮ হাজার ৬২৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও চার হাজার ২৪১ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ছয় লাখ ৬১ হাজার ৬৯৩ জন।

সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩৫০টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১২২টি, জিন এক্সপার্ট ৩৪টি, র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন ১৯৪টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ২৫ হাজার ৮৬৪টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৫ হাজার ৭৮৬টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫৩ লাখ ৭১ হাজার ২৮৭টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৮২ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৮ দশমিক ৩৯ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৯ শতাংশ।

একই সময়ে মৃত ৯৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৬৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১২ জন, খুলনা ও সিলেট বিভাগে ছয় জন করে ১২ জন, রাজশাহী বিভাগে চার জন, বরিশাল বিভাগে তিন জন, রংপুর বিভাগে দু’জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন রয়েছেন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৪৯ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৪৪ জন, বাড়িতে তিন জন, হাসপাতালে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে একজনকে।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে ৫৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে চার জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দু’জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৫৯৭ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫২৭ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ২০ হাজার ৭৯৩ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন এক লাখ এক হাজার ২৮৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৯ হাজার ৫০৮ জন।

গত বছরের ০৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়। আর ১৮ মার্চ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর খবর জানায় আইইডিসিআর।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »