অভিমানে মাদ্রাসা শিক্ষকের আত্মহত্যা

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) থেকে মো. সুমন »

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বলাৎকারের মিথ্যা অভিযোগে মাদ্রাসার এক শিক্ষককে চাকুরিচ্যুত করায় তিনি বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন।

শনিবার ভোর রাতে উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের চারিতালুক দারুল হুদা আলিম মাদ্রাসা ও শিশু সনদ এতিমখানায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত আব্দুর রহমান (৩০) কিশোরগঞ্জের নিকলী থানাধীন দৌলপুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি ওই মাদ্রাসায় চার বছর ধরে শিক্ষকতা করতেন।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার ওই মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ইকবাল হাসান এতিমখানার এক ছাত্রকে বলাৎকার করার অভিযোগে শিক্ষকতা থেকে আব্দুর রহমানকে বহিস্কার করে ও তার সকল পাওনাদী পরিশোধ করে দেয়। এমনকি শনিবার সকালে মাদ্রাসা থেকে চলে যাওয়ার জন্য নির্দেশ করে। এ অপবাদ সহ্য করতে না পেরে শনিবার ভোর রাতে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে বিষপান করেন তিনি। গুরুতর আহত অবস্থায় মাদ্রাসার অন্য শিক্ষক ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষককে বহিস্কারের বিষয়টি অস্বীকার করে প্রিন্সিপাল মাওলানা ইকবাল হাসান বলেন, শুক্রবার শিক্ষক আব্দুর রহমান মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটি ও আমার কাছে বাড়িতে যাবে বলে ছুটি চাইলে তাকে তার সকল পাওনাদী পরিশোধ করে ছুটি দেয়া হয়। কিন্তু ভোর রাতে জানতে পারি তিনি বিষপান করেছেন। আমরা হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মৃত্যুবরণ করে।

আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে বোমা বিস্ফোরণ

তিনি আরও বলেন, কয়েকমাস আগে শিক্ষক আব্দুর রহমান বিয়ে করেন। তার স্ত্রীর সঙ্গে নাকি তার সম্পর্ক ভাল না। সে জন্য হয়তো তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »