Koyra Hospital

মিঠাপুকুরে বেশি ভাগ জমিতে আগাম আলু চাষ করছে কৃষকেরা

মিঠাপুকুর (রংপুর) থেকে মোঃ শামীম রানা »

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় আগাম ধান চাষ করে,সে ধান কাটাই মাড়াই শেষ করে কৃষকেরা বেশি ভাগ জমিতে আগাম আলু চাষ করছে।

যা কৃষি বিভাগের ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের আগেই আগাম আলু চাষ আবাদে কৃষকেরা মাঠে নেমে পড়েছে। এই আগাম আলু আগামী ৬০ থেকে ৭০ দিনের মধ্যে বাজারে বিক্রি হবে।

গতকাল সোমবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে,আগাম আলু উৎপাদনের সুতিকাগার হিসেবে খ্যাত রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার ৮ নং চেংমারী ইউনিয়নের পাগলার হাট হয়ে ফকিরের হাট, মোসলেম বাজার, রাণীপুকুর হয়ে জায়গীর হাট,বলদীপুকুর,পায়রাবন্দ,বালারহাট ইউনিয়নের ঘাঘট নদীর চর এলাকায় আগাম আলু চাষ আবাদ করছে কৃষকেরা।

 

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবছর এই উপজেলায় প্রায় ৪ হাজার ৫ শত থেকে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম আলু চাষ হয়ে থাকে। গত বছর আগাম আলুর মূল্য বেশি থাকার কারণে এবারও আগাম আলু চাষীরা বেশী সংখ্যক জমিতে আগাম আলু চাষ-আবাদে মাঠে নেমে পড়েছে।

 

আলু লাগানোর কাজে মাঠে কর্ম ব্যস্ত কিষাণ-কিষাণীরা প্রতিবেদককে জানান, প্রতিদিন খাওয়া দাওয়া সহ পারিশ্রমিক পাচ্ছেন ২শ ৫০ টাকা থেকে ৩ শত টাকা করে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, সঠিক মূল্য পাবার আশায় কৃষকেরা বেশি ভাগ জমিতে আগাম আলু চাষ-আবাদে ঝুঁকে পড়েছে।

 

গত বছরের তুলনায় এ বছর মিঠাপুকুর উপজেলায় মোট আগাম আলু আবাদী এলাকা বাড়বে এবং এতে করে তারা কৃষির মোট উৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »