Koyra Hospital

বাঁধের ধারে বেড পদ্ধতিতে সবজি চাষ

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) থেকে মো:ছামিউল ইসলাম »

উদ্ভাবনী পরিকল্পনা নিয়ে করোনাকালিন সময়ে সকলের পুষ্টিগুণ সম্পন্ন সবজি চাহিদা মেটানোর জন্য ‘এক ইঞ্চি জমি পড়ে থাকবে না’ প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে অনুপ্রেরণা নিয়ে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের দুই ধারে বেড পদ্ধতিতে সবজি চাষের উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারীর পরামর্শক্রমে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়নের কামরজানি হতে তারাপুর ইউনিয়নের ঘগোয়া পর্যন্ত প্রায় ৩৫ কিলোমিটার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের দুই ধারে সবজি চাষে স্থানীদের উৎসাহী করছে।

বেলকা ইউনিয়নের প্রায় ৩ কিলোমিটার বাঁধের ধারে সংশ্লিষ্ট ব্লকের উপ-সহকারী কৃষিকর্মতাদের সহযোগিতায় কৃষকরা বেড তৈরি করে সবজি চাষ শুরু করছেন। উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সবজি বীজ এবং সার প্রদান করছে।

এছাড়া বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস বাংলাদেশ ও ইকো কো-অপারেশনের বাস্তবায়নে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে সঙ্গ প্রকল্প টেকনিক্যাল সহায়তা প্রদান করছে।

বেলকা ইউনিয়নের কৃষক সাজু মিয়া জানান, বাঁধের ধারে সবজি চাষ করার জন্য উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা পরামর্শ দিয়েছে। সে মোতাবেক বেড তৈরি করছি এবং কৃষি অফিস থেকে বীজ ও সার প্রদান করছে।

আরও পড়ুন>>>>তাড়াশে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ

যদি ফলন ভাল হয় তাহলে সবজি চাহিদা মেটানো যাবে। বেলকা ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ জানান, এটি একটি ভাল উদ্যোগ। বাঁধের দুই ধারে অনেক অসহায় পরিবার রয়েছে।

তাদের সবজি চাহিদা পূরণের জন্য সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সৈয়দ রেজা-ই মাহমুদ জানান, উদ্ভাবনমূলক পরিকল্পনা থেকে এমপি স্যার এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পরামর্শক্রমে বাঁধের দুইধারে বেড পদ্ধতিতে সবজি চাষ শুরু করা হয়েছে।

আশা করা যাচ্ছে এটি চলমান থাকলে সকলের জন্য পুষ্টিগুণ সম্পন্ন সবজি চাহিদা মোটানো সম্ভব হবে ইনশাআল্লাহ।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »